1. mti.robin8@gmail.com : Touhidul islam Robin : Touhidul islam Robin
  2. newsnakshibarta24@gmail.com : Mozammel Alam : Mozammel Alam
  3. nakshibartanews24@gmail.com : nakshibarta24 :
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ১১:১৮ পূর্বাহ্ন
২১শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনামঃ
বৃত্তিলাভে দোয়া কামনা লাকসামে জামেয়া ইসলামীয়া জমীরিয়া নাছিরুল উলূম মাদ্রাসার শুভ উদ্বোধন পথশিশুদের নিয়ে রেলওয়ে জংশনে মানবিক সংগঠন মায়ার পাঠশালা শুরু মানুষের হৃদয়ে আজও অম্লান ভাষা সৈনিক আবদুল জলিল সাবেক রেলপথ মন্ত্রী মুজিবুল হক এমপিকে চৌদ্দগ্রাম প্রেসক্লাবের ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান মাদক কারবারিরা সমাজের বিষফোঁড়া : আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় মুজিবুল হক এমপি চৌদ্দগ্রাম মডেল কলেজে পিঠা উৎসব নির্বাচিত হলে স্বল্প সময়ের মধ্যে অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করবো : মুজিবুল হক চৌদ্দগ্রামে সোনালী সমাজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ লাকসামে সাংবাদিকদের সাথে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলামের মতবিনিময়

পবিত্র হজের জানা অজানা ইতিহাস

  • প্রকাশকালঃ শুক্রবার, ৩ জুলাই, ২০২০
  • ৩১৮ জন পড়েছেন

নকশী বার্তা ডেস্ক : মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে এ বছর মাত্র দশ হাজার মুসলমান পবিত্র হজ পালন করতে পারবেন বলে সৌদি কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ সিদ্ধান্তকে সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত বলে স্বাগত জানিয়েছে মুসলমান দেশগুলো।

ইতিহাস থেকে জানা যায়, এর আগেও বেশ কয়েকবার মহামারীসহ নানা কারণে সীমিত পরিসরে হজ পালিত হয়। কয়েকবার তো হজই অনুষ্ঠিত হয়নি। আসুন ইতিহাসের পাতা থেকে জেনে নিই কবে কখন কী কারণে হজ পালনে বাধা এসেছিল।

কারবালার হৃদয়বিদারক ঘটনা ঘটে ৬৩ হিজরিতে। ইমাম হোসাইন (রা.) কে হত্যা করে ক্ষমতা পাকাপোক্ত করে নেয় ইয়াজিদ। ক্ষমতার শুরু থেকেই মক্কা-মদিনায় নির্মম গণহত্যা চালাতে থাকে পাপীষ্ঠ ইয়াজিদ। এর ঠিক দশ বছর পর ৭৩ হিজরি অর্থাৎ ৬৯৩ খ্রিস্টাব্দে খলিফা আবদুল মালিক বিন মারওয়ানের নির্দেশে হাজ্জাজ বিন ইউসুফ বাইতুল্লাহ অবরোধ করে বসে।

সেখানে হজরত আবু বকর (রা.)-এর নাতি হজরত আসমা (রা.)-এর ছেলে আবদুল্লাহ বিন জোবায়ের (রা.) আত্মগোপন করেছিলেন। তিনি ছিলেন একজন ন্যায়নিষ্ঠ সাহাবি। জালেম শাসকদের সামনে বিরোচিতভাবে সত্য উচ্চারণ করার অপরাধে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।

পাপীষ্ঠ মারওয়ান যখন জানতে পারল ন্যায়নিষ্ঠ এ সাহাবি কাবা শরিফে আত্মগোপন করে আছেন, তখন তাকে গ্রেফতার করার জন্য কাবাঘরে সাময়িক সময়ের জন্য তাওয়াফ এবং উমরাহ হজের কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়। শুধু তাই নয়, মারওয়ান কাবা শরিফের একাংশ ভেঙে ফেলে শুধু এ জন্য যে, ওই অংশ নির্মাণ করেছিলেন মজলুম সাহাবি হজরত আবদুল্লাহ ইবনে জোবায়ের (রা.)।

ইরাকের আব্বাসি শাসক ও মিসরে উবায়াদি শাসকদের দুর্বলতার সুযোগে কারামিয়া শাসকরা আরব উপদ্বীপের পূর্ব দিকে বাহরাইনে একটি রাষ্ট্র গঠন করে। তাদের বিশ্বাস ছিল, ‘হজ জাহেলি যুগের একটি নিদর্শন। হজ অনেকটা মূর্তি পূজার মতোই।’

তাই ইসলামের ফরজ বিধান হজ বন্ধ করতে কারামিয়া শাসকরা তৎপর হয়ে ওঠে। ৩১৭ হিজরি ৯৩০ খ্রিস্টাব্দ ছিল মুসলমানদের বেদনাদায়ক ইতিহাস। বাহরাইনের শাসক আবু তাহের কারামিয়া নেতৃত্বাধীন সেনাবাহিনী হাজিদের কাফেলায় আক্রমণ করে। অনেক নারী-পুরুষকে হত্যা করে এবং তাদের সম্পদ ছিনতাই করে। ইরাক ও সিরিয়া থেকে মক্কা আসার পথে তারা আতঙ্ক তৈরি করে। ফলে ৩১৭ হিজরি থেকে ৩২৭ হিজরি পর্যন্ত মোট দশ বছর হজের কার্যক্রম বন্ধ ছিল।

খবরটি সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো খবর

বিজ্ঞাপন

Laksam Online Shop

first online shop in Laksam

© All rights reserved ©nakshibarta24.com
কারিগরি সহায়তায় বিডি আইটি হোম