1. mti.robin8@gmail.com : Touhidul islam Robin : Touhidul islam Robin
  2. newsnakshibarta24@gmail.com : Mozammel Alam : Mozammel Alam
  3. nakshibartanews24@gmail.com : nakshibarta24 :
মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ০৬:২১ পূর্বাহ্ন
৮ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রূপগঞ্জে আখের বাম্পার ফলন

  • প্রকাশকালঃ শনিবার, ২৯ আগস্ট, ২০২০
  • ২৫২ জন পড়েছেন
রূপগঞ্জ প্রতিনিধি :

কৃষিপ্রধান আমাদের এ দেশে অনেক কৃষি পণ্যই হারিয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। রাজধানী ঢাকার অতি নিকটে হওয়ায় রূপগঞ্জের কৃষি জমিতে আবাসন শিল্পের প্রভাব পড়েছে। কৃষি জমি ভরাট করে আবাসন তৈরি করা হচ্ছে। কমে যাচ্ছে কৃষি জমি। তাছাড়া ফলন কম হওয়ায় ধান চাষে কৃষকের আগ্রহ কমে যাচ্ছে।

অন্যদিকে আখ চাষে আল্প সময়ে অধিক মুনাফা হওয়ায় রূপগঞ্জের চাষিরা এখন আখ চাষের দিকেই ঝুঁকছে। এবার আখ চাষে বাম্পার ফলন হয়েছে। এর ফলে ধান চাষ থেকে আখ চাষে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ায় আখ চাষে ঝুঁকছেন রূপগঞ্জের কৃষকরা। বর্ষার শুরুতে আখ চাষ করে এবার বাম্পার ফলন হয়েছে। দামও বেশ ভাল। উৎপাদিত আখের আশানুরূপ দাম পেয়ে খুশি আখ চাষিরা।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অর্থায়নে রূপগঞ্জে আখ চাষ জোরদারকরণ প্রকল্পের আওতায় কৃষকরা চাষ করে যাচ্ছেন। এ ছাড়া ব্যক্তিগত উদ্যোগেও অনেকে আখ চাষ করেছেন। আখ চাষের অধিকাংশ জমিই আনাবাদী ছিল। কিছু কিছু ধান চাষের জমিতে আখের এ বাম্পার ফলনে অনেকে আখ চাষে ঝুঁকছেন।

এলাকার আখ চাষিরা জানায়, গত ২ বছরে রূপগঞ্জের আনাবাদি জমিতে আখ চাষ শুরু করেছেন এলাকার কৃষকরা। ধান চাষে অমানসিক পরিশ্রম ও মূলধন বেশি লাগার কারণে অনেক কৃষকই ধান চাষ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে শুরু করেছেন। একই সঙ্গে তারা ধানের বিকল্প ফসল চাষের চেষ্টা চালাচ্ছেন। যেসব কৃষক ধান চাষ করতেন তাদের অনেকেই এখন আখসহ বিভিন্ন ফসলের চাষ করে লাভবান হচ্ছেন।

রূপগঞ্জ কৃষি আফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি বছর রূপগঞ্জে ১ হাজার হেক্টর (৭৫০ বিঘা) জমিতে আখ চাষ করা হয়েছে। এর মধ্যে লতারি জবা আখ ৭০ হেক্টর, মিছড়ি দানা আখ ১০ হেক্টর, বাশ টেনাই আখ ১০ হেক্টর, সূর্যমুখী আখ ৫ হেক্টর, ইশ্বরদী-১৬ আখ ৫ হেক্টর জমিতে চাষ করা হয়েছে।

এছাড়া কৃষকরা আখক্ষেতে সাথী ফসল হিসেবে আলু, গাজর ও ফরাশশিম চাষ করে লাভবান হচ্ছেন। আখক্ষেতে সাথী ফসল হিসেবে বাঁধাকপি, ফুলকপিসহ আরও কয়েকটি কৃষি ফসল চাষে রূপগঞ্জ কৃষি বিভাগ প্রযুক্তি সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে।

রূপগঞ্জে মাটি ও আবহাওয়া আখ চাষের উপযোগী এবং জলাবদ্ধতা না থাকায় চলতি মৌসুমে আখের বাম্পার ফলন হয়েছে। প্রতি হেক্টর আখ চাষে কৃষকের খরচ হয়েছে ২ লাখ টাকা। আর প্রতি হেক্টরে উৎপাদিত আখ ১০ থেকে ১১ লাখ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বলে জানা গেছে।

মুড়াপাড়া ইউনিয়নের আখ চাষী মনির মিয়া জানান, তিনি প্রায় ১০ শতক জমিতে মিছড়ি দানা জাতের আখ চাষ করেছেন। তার মোট ব্যয় হয়েছে ৫০ হাজার টাকা। বিক্রয় মূল্য পাচ্ছেন ৮০ হাজার টাকা। আগে এসব ভূমিতে ধান চাষ করে তিনি খরচ বাদ দিয়ে ৫ হাজার টাকাও লাভ করতে পারতেন না।

ভোলাব এলাকার আখ চাষি রহমাতুল্লাহ জানান, তিনি ২ লাখ টাকা খরচ করে আখ চাষ করেছেন। প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকা বিক্রি করবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করছেন।

রূপগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোফাজ্জল হোসেন জানান, বেলে-দোআঁশ থেকে শুরু করে এঁটেল সব মাটিতেই আখ চাষ করা সম্ভব। তবে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থাযুক্ত এঁটেল-দোআঁশ মাটি আখ চাষের জন্য সর্বোত্তম। রূপগঞ্জে শীতলক্ষ্যার চরের জমিতে আখ চাষের অনুকূল পরিবেশ বিদ্যমান।

খবরটি সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো খবর

বিজ্ঞাপন

Laksam Online Shop

first online shop in Laksam

© All rights reserved ©nakshibarta24.com
কারিগরি সহায়তায় বিডি আইটি হোম