1. mti.robin8@gmail.com : Touhidul islam Robin : Touhidul islam Robin
  2. newsnakshibarta24@gmail.com : Mozammel Alam : Mozammel Alam
  3. nakshibartanews24@gmail.com : nakshibarta24 :
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ১০:০৪ অপরাহ্ন
৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মানুষের মনে আজও অমলিন আবুল খায়ের

  • প্রকাশকালঃ বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ১৪৮ জন পড়েছেন

মোজাম্মেল হক আলম :


লাকসাম পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি মোঃ আবুল খায়েরের ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী শুক্রবার (২ডিসেম্বর)। ২০১৭ সালের ২৫ নভেম্বর কুমিল্লা-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কের বাগমারা নামক স্থানে সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়ে তিনি গুরুতর আহত হন। ২ডিসেম্বর তিনি ঢাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হসপিটালে (৬২) বছর বয়সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। ওইসময় তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে পারিবার, রাজনৈতিক ও সামাজিক অঙ্গনে। প্রিয়জনের এই আকস্মিক মৃত্যু মেনে নিতে পারেনি তখন কেউই।
রাজপথের যেকোন আন্দোলন-সংগ্রামে সামনের সারিতে থাকা আওয়ামীলীগ নেতা আবুল খায়ের আজও তার নিজ কর্মে মানুষের মনে অমলিন হয়ে আছেন। তাঁর সঙ্গে অলিখিত নিবিড় বন্ধনে আজো জড়িয়ে আছে সাধারণ মানুষ। আওয়ামী পরিবারে বেড়ে ওঠা আবুল খায়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণীত হয়ে কিশোর বয়সেই জড়িয়ে পড়েন ছাত্র রাজনীতিতে। ধীরে ধীরে অতিক্রম করতে থাকেন রাজনীতির একেকটি ধাপ। বহুবার হামলা-মামলার শিকার হয়েও পিছু হটেননি রাজপথের এই অকুতোভয় নেতা। দীর্ঘ ৫ বছর যাবৎ ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালনকালে ক্ষমতা কিংবা অর্থের মোহ তাকে একটুও ছোঁয়নি। তিনি নীতি ও নিষ্ঠাবান, আদর্শবান, কুশলী এবং সজ্জন ছিলেন।
সামাজিক কর্মকান্ড তথা এলাকার সার্বিক উন্নয়ন কর্মকান্ডেও তার অনস্বীকার্য অবদান রয়েছে। মসজিদ, মাদ্রাসা, স্কুল, মক্তবসহ এলাকার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে এবং সমাজের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অনুদান দিতে কখনোই তিনি কার্পণ্য করতেন না। যার ফলে শুধু নিজ গ্রাম নয়, আশপাশের গ্রামের মানুষের কাছেও তিনি ছিলেন অনন্য শ্রদ্ধার পাত্র। এসব কারণে ওয়ার্ড নেতাকর্মীদের মাঝে তার জনপ্রিয়তা ছিল প্রবাদ প্রতিম। নীরবে রাজনীতিতে এসে সরবে জনপ্রিয় হয়েছেন। সবার মন জয়ে করে পৃথিবী ছেড়ে চলেও গেছেন। জনকল্যাণ এবং দেশপ্রেমের রাজনীতিতে উজ্জল দৃষ্টান্ত হয়ে রইলেন সবার অন্তর।
১৯৫৫ সালে লাকসাম উপজেলার গুন্তি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন আবুল খায়ের। পিতা মৃত. আব্দুল করিম ও মাতা ফুলমতের নেছার ৫ ছেলে ও ১ মেয়ের সংসারে তিনিই সবার বড়। ২৭ বছর বয়সে তিনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন পাশ্ববর্তী বিনই গ্রামের মোখলেছুর রহমানের বড় মেয়ে আনোয়ারা বেগমের সাথে। দাম্পত্য জীবনে তিনি ৪ ছেলে ও ১ মেয়ের জনক। সাধ্যানুযায়ী পড়াশুনা করিয়ে একমাত্র মেয়েকে সম্ভ্রান্ত পরিবারে বিয়ে দিয়েছেন। বড় ও সেঝো ছেলেকে প্রবাসে পাঠিয়েছেন। তার মেঝো ছেলে হারুনুর রশীদ ব্যবসার পাশাপাশি উপজেলা যুবলীগের রাজনীতির সাথে সক্রিয় ভাবে সম্পৃক্ত। আর ছোট ছেলে তরুণ ফটোগ্রাফার সাইফুল ইসলাম রাজু কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং-এ পড়াশুনার পাশাপাশি বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত রয়েছেন।

খবরটি সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো খবর

বিজ্ঞাপন

Laksam Online Shop

first online shop in Laksam

© All rights reserved ©nakshibarta24.com
কারিগরি সহায়তায় বিডি আইটি হোম