1. mti.robin8@gmail.com : Touhidul islam Robin : Touhidul islam Robin
  2. newsnakshibarta24@gmail.com : Mozammel Alam : Mozammel Alam
  3. nakshibartanews24@gmail.com : nakshibarta24 :
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ১২:৫৮ পূর্বাহ্ন
৬ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাথের পেটুয়া ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণির ভর্তিতে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ

  • প্রকাশকালঃ বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৪৮১ জন পড়েছেন

স্টাফ রিপোর্টার :
কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার নাথের পেটুয়া ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তিতে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। শিক্ষা বোর্ডের জারি করা ভর্তির প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ আছে, সেশন চার্জসহ ভর্তি ফি মফস্বল/পৌর (উপজেলা) এলাকায় ১০০০ টাকার বেশি হবে না। কিন্তু শিক্ষা বোর্ডের নিয়মনীতিকে তোয়াক্কা না করে অতিরিক্ত ভর্তি ফি গ্রহণের অভিযোগ রয়েছে ওই কলেজের কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।
ভুক্তভোগী বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী জানায়, উপজেলার নাথের পেটুয়া ডিগ্রি কলেজে চলতি বছর প্রত্যেক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে অনলাইন প্রসেসিং ফি, ভর্তি ফি, ভর্তিকরণের নামে একাদশ শ্রেণির ভর্তির ক্ষেত্রে শিক্ষার্থী প্রতি মানবিক, ব্যবসায় শিক্ষা, বিজ্ঞান শাখায় ৩হাজার ১‘শ টাকা করে নেয়া হচ্ছে। এছাড়া ভর্তি ফরম বাবদ আরও ১শ টাকা অতিরিক্ত নেয়া হচ্ছে। গরীব, অসহায়, মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীর ভর্তির ক্ষেত্রেও কোনো ছাড় দেয়া হচ্ছে না। কলেজ কর্তৃপক্ষের ধার্য টাকার স্থলে কম দিলে ওই শিক্ষার্থী ভর্তি হতে বিভিন্ন ঝামেলায় পড়তে হচ্ছে।
নাম প্রকাশ না করা শর্তে নাথের পেটুয়া ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হওয়া কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের কাছ থেকে ভর্তি বাবদ রিসিটে ১হাজার উল্লেখ করলেও কলেজ কর্তৃপক্ষ উন্নয়ন বাবাত ১হাজার ৫‘শ, আপ্যায়ন বাবত আরো ৬‘শ টাকাসহ মোট ৩হাজার ১‘শ টাকা করে নিচ্ছেন ও ফরম বাবদ আরও ১শ টাকা নিয়েছে। বাকি টাকার রিসিট চাইলে পরে দিবেন বলে জানান। আমরা যতদূর জেনেছি অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের এ বিষয়টি মন্ত্রণালয়ের পরিপত্রে উল্লেখ নেই। সুতরাং এটি বিধি বহির্ভূত।
এ প্রসঙ্গে কলেজের অধ্যক্ষ আবদুর রশিদ বলেন, আমরা ভর্তি বাবত ১হাজার, উন্নয়ন ফি ১হাজার ৫‘শ টাকাসহ মোট ২হাজার ৫শ টাকার বেশি নিচ্ছি না। শুধু মাত্র ৫/৬জন শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ৩হাজার ১‘শ টাকা নেয়া হয়েছে। আর একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্বান্ত মোতাবেক ভর্তি কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। তাছাড়া বোর্ডের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী ভর্তির টাকা নেয়া হচ্ছে। অতিরিক্ত কোনো টাকা আদায় করা হচ্ছে না।
এ বিষয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ জাকির হোসেনের (০১৭১৫-০০১৪৪৮) ফোন নাম্বার একাধিকবার ফোন করেও বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

খবরটি সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো খবর

বিজ্ঞাপন

Laksam Online Shop

first online shop in Laksam

© All rights reserved ©nakshibarta24.com
কারিগরি সহায়তায় বিডি আইটি হোম